টংগীবাড়িতে খুন: যেভাবে গ্রেফতার হলো ৩ আসামি

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীতে ইউনিয়ন পরিষদের সহকারী উদ্যোক্তাকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় ছিনতাইকারী চক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার (২০ নভেম্বর) রাতে ঢাকা ও মুন্সীগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

রবিবার (২১ নভেম্বর) দুপুরে জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- মো. নাজির হোসেন ওরফে নাজিম মোড়ল, মো. ফয়সাল ওরফে জুয়েল ও মো. মিলন। গ্রেফতার হওয়া ৩ জন লৌহজং উপজেলার মশদগাঁওয়ের বাসিন্দা। তাদের কাছ থেকে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ২টি চাকু, লাইটার পিস্তল ও একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে।

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীতে ইউনিয়ন পরিষদের সহকারী উদ্যোক্তাকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া ছিনতাইকারী চক্রের ৩ সদস্য। ছবি- ইত্তেফাক

তিনি বলেন, হত্যার ঘটনায় মামলার পর থেকেই থানা পুলিশ ও জেলা গোয়েন্দা শাখার কয়েকটি টিম একসঙ্গে কাজ করে। প্রযুক্তির সহায়তায় ঢাকা ও মুন্সীগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ঘটনার সঙ্গে জড়িত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের আদালতে সোপর্দ করা হবে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, তারা মূলত ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে ঘটনাটি ঘটিয়েছে।

এর আগে, গত ৭ নভেম্বর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ব্যাংক থেকে ফেরার পথে টঙ্গীবাড়ী উপজেলার বলই এলাকায় বালিগাও-টঙ্গীবাড়ী সড়কে প্রকাশ্যে কুপিয়ে হত্যা করা হয় বারেক শেখকে। নিহত বারেক ময়মনসিংহ জেলার মোস্তফা শেখের ছেলে। তিনি হাসাইল ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সহকারী উদ্যোক্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন। হত্যাকাণ্ডের দিনই নিহতের পিতা বাদি হয়ে থানায় মামলা করেন।

ইত্তেফাক

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.