একশ’ টাকায় পুলিশে চাকরি পেলেন ৩০ জন

মুন্সীগঞ্জে একশ’ টাকা ব্যাংক ড্রাফটে পুলিশে (ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে) ৫ জন নারী ও ২৫ জন পুরুষ চাকরি পেয়েছেন। বুধবার (২৪ নভেম্বর) সোয়া ১০টার দিকে মুন্সীগঞ্জ পুলিশ লাইন্সে সকলের সামনে এ ফলাফল ঘোষণা করেন মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন। অনলাইনে আবেদনের পর শতভাগ সঠিক প্রক্রিয়ায় এ নিয়োগ পরীক্ষায় সম্পন্ন করা হয়।

মুন্সীগঞ্জ পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন জানান, মুন্সীগঞ্জের বিভিন্ন স্থান থেকে ১০০০ জন পুরুষ ও ১৩৪ জন নারী পরীক্ষায় আবেদন করে। এরমধ্যে প্রথম ধাপে লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয় ২৮৫ জন। দ্বিতীয় ধাপে ভাইভাতে উত্তীর্ণ হয় ১১০ জন। আর এরমধ্যে চূড়ান্তভাবে উত্তীর্ণ হয় ৩০ জন। ৫ জন নারী ও ২৫ জন পুরুষ। এতে আনসার ও ভিডিপি কোঠায় ২ জন, পুরুষ পোষ্য (পুলিশ সদস্যের সন্তান) ৫ জন, মুক্তিযোদ্ধা কোঠায় নারী ১ জন, মুক্তিযোদ্ধা কোঠায় পুরুষ ৫ জন, সাধারণ নারী ৪ জন, নারী পোষ্য কোঠায় (পুলিশ সদস্যের সন্তান) ১ জন, সাধারণ পুরুষ ১২ জন রয়েছে। অপেক্ষমাণ তালিকায় রাখা হয়েছে কয়েক জনকে। কেউ যদি মেডিকেল ও ভেরিফিকেশনে বাদ পড়ে তাহলে সেখান থেকে যুক্ত করা হবে।

উর্ত্তীণ হওয়ারা তাদের অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে তারা আরটিভি নিউজকে বলেন, শতভাগ শুদ্ধ ভাবে প্রতিটা ধাপ পার করে উত্তীর্ণ হতে পেরে সত্যিই ভালো লাগছে। নিজের ও বাবা-মায়ের স্বপ্নপূরণ হচ্ছে। আমরা ভীষণ আনন্দিত।

নতুনের উদ্দেশ্যে পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন আরটিভি নিউজকে বলেন, পুলিশের কাছ থেকে মানুষ যেটা প্রত্যাশা করে তা যেন পায়। এ সময় তিনি আরও বলেন, গত ১৪ নভেম্বর হতে এ পরীক্ষা শুরু হয়। পরীক্ষার খাতা ঢাকা হেডকোয়ার্টারে পাঠানো হয়। সেখান থেকেই এ ফলাফল পাঠানো হয়।

তিনি আরও বলেন, গত ১৫ নভেম্বর পুলিশের চাকরি দেওয়ার কথা বলে মুন্সীগঞ্জ গজারিয়া উপজেলা হতে ৬ লাখ টাকাসহ এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

এ সময় জেলা পুলিশ ও ঢাকা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরটিভি নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.