আড়িয়াল বিলে বোরো ধানের চারা রোপণে ব্যস্ত কৃষকরা

বিখ্যাত আড়িয়াল বিলে বোরো ধানের চারা রোপণে ব্যস্ত সময় পাড় করছেন কৃষক। শ্রীনগর উপজেলায় প্রায় ১০ হাজার হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এর মধ্যে আড়িয়াল বিলের মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর অংশেই ৫ হাজার হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ করা হয়। এই অঞ্চলে ২৮ ও ২৯ হাইব্রিড জাতের ধান চাষ বেশি করা হচ্ছে। বোরো মৌসুমের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কৃষি কাজের জন্য দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আসা হাজার হাজার শ্রমিকের কর্মসংস্থান হচ্ছে। এখানকার বিশাল কৃষি কর্মযজ্ঞে এসব শ্রমিকদের ভূমিকা অপরিসীম।

আড়িয়াল বিল এলাকা ঘুরে দেখা যায়, লোকালয়ের কাছাকাছি প্রায় জমিতে বোরো ধানের চারা রোপণ করা সম্পন্ন হয়েছে। বিলের গভীরে থাকা নিচু জমিগুলো টিলার মেশিনে চাষ দিতে দেখা যাচ্ছে। কাঁদা মাটিতে কনকনে শীত উপক্ষো করে অসংখ্য শ্রমিক বিলের জমিগুলোতে ধানের চারা রোপণ করছেন।

এ সময় বিল এলাকার বাড়ৈখালী এলাকায় সোহেল ও মিস্টার আলীসহ বেশ কয়েকজন শ্রমিক বলেন, সকাল ৭টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত দৈনিক ৩ বেলা খাবার খেয়ে সাড়ে ৫০০ টাকা করে এ কাজে মজুরি পাচ্ছেন তারা। প্রায় মাসব্যাপী বিভিন্ন জমিতে কৃষি কাজ করে বাড়িতে ফিরবেন তারা।

স্থানীয় ধান চাষীরা জানান, জমিতে ধানের চারা রোপণ শুরু হয়েছে। তবে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে অসময়ে বৃষ্টিতে এখানকার ফসলি জমিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। এতে করে অসংখ্য বোরোর বীজতলা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পাশাপাশি ফসলি চাষাবাদে কিছুটা বিরম্বনার শিকার হন।

স্থানীয় কৃষি অফিস সূত্র জানায়, উপজেলায় প্রায় ১০ হাজার হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের ধান চাষের লক্ষ্যমাত্র ধরা হয়েছে। এ চাষে ফসলের রোগ বালাই সংক্রান্ত ও বাম্পার ফলনের লক্ষ্যে কৃষকদের সার্বিক পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। গত বছর করোনাকালীন সময়ে কৃষকের আগাম ধান ঘরে তুলতে উন্নত প্রযুক্তি হারভেস্টার, রিপার মেশিনসহ হাজার হাজার কৃষি শ্রমিকের ব্যবস্থা করে দেন উপজেলা প্রশাসন।

নিউজজি

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.