গজারিয়ায় মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলায় মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের উপর হামলা, আহত ৩

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় মাদকের বিরুদ্ধে কথা বলায় বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলা ঘটনা ঘটেছে। হামলার ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের নারীসহ ৩ জন আহত হয়েছে।

শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলার গুয়াগাছিয়া ইউনিয়নের বড় বসুরচর গ্রামের ফকির বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। এসময় সন্ত্রাসীর তিন বাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট করে।

হামলায় আহতরা হলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার ভাই মৃত মালেক বেপারীর স্ত্রী খাদিজা বেগম (৬৫), মৃত-আব্দুল বাতেনের ছেলে মো.সালাউদ্দিন ও মৃত মালেক বেপারীর ছেলে মো. নাঈম(২৩)।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আহত ব্যক্তি সুত্রে জানা যায়, উল্লেখিত এলাকার মো. বাদশা মিয়া নামের এক মাদক বিক্রিতা ও সেবনকারী তার অন্যান্য সঙ্গীদের সহ প্রায় প্রতিদিন ঐ এলাকায় প্রকাশ্য মাদক বিক্রি ও সেবন করে। এতে করে ঐ এলাকার যুবক শ্রেনীর অনেক্যেই মাদকাসক্তে আশক্ত হতে দেখে বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা ও তার ভাতিজা নাঈম বার বার সন্ত্রাসী মো. বাদশা মিয়া কে সতর্ক করে দেন। কিন্তু সন্ত্রাসী মো. বাদশা মিয়া এর মাদক সেবনে বাধা

দেওয়ায় বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফা এবং তার ভাতিজা নাঈমের মধ্যে বড় ধরনের আঘাত সংঘাতের পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে থাকে। যার ফলশ্রুতিতে বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার পরিবারের প্রতি এই সন্ত্রাসী হামলা। শুক্রবার বিকালে সে ধারালো অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার পরিবারের প্রতি আক্রমন চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা তিন টি বাড়ি ভাংচুর করে আলমারি তালা ভেঙে প্রায় ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা নিয়া যায়।

এতে করে সন্ত্রাসীদের হামলায় বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার ভাই মৃত মালেক বেপারীর স্ত্রী খাদিজা বেগম, মো.সালাউদ্দিন, মো. নাঈম কে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এই বিষয়ে গজারিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম মোস্তফার ভাতিজা রাসেল আহম্মেদ।

এই বিষয়ে তদন্তকারী কর্মকর্তা গজারিয়া থানার এসআই কামাল মিয়া জানান, অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনার স্থল পুলিশ পরিদর্শন করেছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জনকন্ঠ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.