মুন্সীগঞ্জে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসসের আলোচনা সভা

মুন্সীগঞ্জে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস নানা আয়োজনে পালন করা হয়েছে। সোমবার সকাল ১১ টার দিকে মুন্সীগঞ্জ শহরের পুরাতন কাচারীতে জেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে জেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ পত্যাবর্তন দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে সভাপতিত্বে করেন বঙ্গবন্ধুর একান্ত সহচর, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোহাম্মদ মহিউদ্দিন। মুন্সীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র হাজী মোহাম্মদ ফয়সাল বিপ্লবের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন-জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শেখ লুৎফর রহমান, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্মসম্পাদক সম্পাদক অ্যাডভোকেট সোহানা তাহমিনা,জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল উদ্দিন আহমেদ,জেলা আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ সোহরাব হোসেন পীর, জেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মতিউল ইসলাম হিরু, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মতিন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মো. আফছার উদ্দিন ভূইয়া, শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুর রহমান ভুইয়া, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নাজমুল হাসান সোহেল,জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সাইফুল বিন সামাদ শুভ্র,জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ফয়সাল মৃধা,শহর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আতোয়ার রহমান ভুইয়া,শহর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মোহাম্মদ আলী,চরকেওয়ার ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুর রাজ্জাক, সদর উপজেলার ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সুরুজ মিয়া, পৌরসভার কাউন্সিল খায়রুল ইসলাম, পৌরসভার প্যানেল মেয়র সাজ্জাদ হোসাইন সাগর।

উপস্থিত ছিলেন- ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মালেকুন মাকসুদ বিপুল, সরকারি হরগঙ্গা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি নিবির আহমেদ,সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন,যুগ্ম সাধারন রায়হান আহম্মেদ রাফি, মুন্সীগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের উপ দপ্তর সম্পাদক মো:ওমর ফারুক,৬ নং ওয়াড ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর। স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয় ঘটলেও স্বাধীনতার নায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তখনও পাকিস্তানের কারাগারে বন্দি ছিলেন। স্বাধীন দেশে ওই সময় আরেকটি সংগ্রাম শুরু হয়, বঙ্গবন্ধুকে ফিরিয়ে আনার সংগ্রাম। বঙ্গবন্ধু আদৌ বেঁচে আছেন কি না, কিংবা পাকিস্তান সরকার তাকে ফিরিয়ে দেবে কি না- সেসব নিয়ে চলে নানান জল্পনা-কল্পনা।

বিজয়ের ২৩ দিন পর ১৯৭২ সালের এদিন অর্থাৎ ১০ জানুয়ারি বেলা ১টা ৪১ মিনিটে অবিসংবাদিত নেতা ও মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশের মাটিতে প্রত্যাবর্তন করেন। ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর পাকিস্তানি হানাদারবাহিনীর বিরুদ্ধে ৯ মাস যুদ্ধের পর চূড়ান্ত বিজয় অর্জিত হলেও ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মধ্য দিয়ে জাতি বিজয়ের পূর্ণ স্বাদ গ্রহণ করে।

বিডি২৪লাইভ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.