সিরাজদিখানে ইটভাটার শ্রমিকরা পেলেন করোনা টিকা

করোনা ভাইরাস সুরক্ষায় এই প্রথম জেলার সিরাজদিখানে ইটভাটার শ্রমিকদের কোভিড-১৯ টিকা দেয়া হয়েছে। রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার পাইনারচর ও খাসকান্দি এলাকায় ডিএনবিএম জিকজাক ইটভাটা, ভান্ডারি ইটভাটা, ইব্রাহিমের ইটভাটা, নাজিম ইটভাটার ৩৪৮ জন শ্রমিককে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেয়া হয়।

ডিএনবিএম জিকজাক ইটভাটা ম্যানেজার মো. আক্তার উদ্দিন বলেন, আমরা সিরাজদিখান ইটভাটা এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে ইটভাটার শ্রমিকদের টিকা প্রদানের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছিলাম। সেই দাবি অনুযায়ী প্রতিটি ভাটা শ্রমিকদের তালিকার সঙ্গে শুধু নাম-ঠিকানা, মোবাইল নাম্বার নিয়ে যাদের এনআইডি (জাতীয় পরিচয়পত্র) বা জন্মসনদ রয়েছে। তাদের মধ্যে ডিএনবিএম জিকজাক ইটভাটা, ভান্ডারি ইটভাটা, ইব্রাহিমের ইটভাটা, নাজিম ইটভাটার ৩৪৮ জন শ্রমিককে টিকা দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও বেশকিছু স্থানে ইটভাটা ছাড়াও অন্য শ্রমিকদের টিকা দেয়া শুরু হয়েছে। সরকার পর্যায়ক্রমে সবগুলো ইটভাটার শ্রমিকদের টিকা প্রদান করবে।

তিনি আরও বলেন, আমাদের কোনও শ্রমিক বা স্টাফদের কেউ এখনও করোনায় আক্রান্ত হয়নি। আমরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ করে যাচ্ছি। এমনকি স্বাস্থ্যবিধি মেনে শ্রমিকদের টিকাও দেয়া হয়।

স্বাস্থ্য পরিদর্শক (ইনচার্জ) দীনেশ চন্দ্র মন্ডল জানান, এই উপজেলায় প্রথমে ৪টি ইটভাটার ৩৪৮ জনকে টিকা দেয়া হয়েছে। দ্রুত সময়ে প্রথম ডোজ টিকার কার্যক্রম শেষ করার জন্য ইটভাগুলো থেকে তালিকা তৈরি করে সবাইকে টিকা দেয়া হবে।

ইটভাটায় কর্মসূচি বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আঞ্জুমান আরা বলেন, সিরাজদিখানে ৫৫টার বেশি ইটভাটা রয়েছে। উপজেলায় সব মিলিয়ে ইটভাটার শ্রমিক আছে প্রায় ১৫ হাজার। ইটভাটার শ্রমিকদের টিকা দেয়ার বিষয়ে ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি ও মালিকরা আমাদের সাথে কথা বলেছেন। এখন প্রতিটি ইটভাটা শ্রমিকদের টিকা দেয়া হবে।

নিউজজি

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.