‘এক টুকরো কৃষিজমিও খালি রাখা যাবে না’ (ভিডিও)

মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক কাজী নাহিদ রসুল বলেন, দেশে দিন দিন জমির পরিমাণ কমছে, মানুষের সংখ্যা বাড়ছে। সনাতন নিয়মে চাষাবাদ করলে খাদ্যের উৎপাদন বাড়ানো সম্ভব হবে না। খাদ্য উৎপাদন বাড়াতে হলে চাষাবাদে যান্ত্রিকীকরণ প্রয়োজন। আর সে কারণেই সরকার কৃষি সম্প্রসারণ অফিসের মাধ্যমে নানামুখী কর্মসূচি হাতে নিয়েছে।

তিনি বলেন, এক টুকরো কৃষিজমিও খালি রাখা যাবে না। কৃষি জমির যথাযথ ব্যবহার করতে হবে।

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার বাসাইল ইউনিয়নের ডাকাতিয়াপাড়ায় আধুনিক যন্ত্র রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক কাজী নাহিদ রসুল এসব কথা বলেন।

বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টায় কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সিরাজদিখান উপজেলার আয়োজনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিশেষ অতিথি ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রশিক্ষণ অফিসার এবিএম ওয়াহিদুর রহমান, সিরাজদিখান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান হাজী মহিউদ্দিন আহম্মেদ, ভাইস চেয়ারম্যান মঈনুল হাসান নাহিদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাহমিনা আক্তার।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ ফয়েজুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা হিমেল সরকার জুঁইয়ের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিরাজদিখান উপজেলা কৃষি অফিসার রোজিনা আক্তার।

আরও বক্তব্য দেন- বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম সামসুদ্দিন আহম্মেদ খায়ের, কৃষক আনোয়ার হোসেন।

রবি মৌসুমে বোরোধান উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে সমলয় চাষাবাদ প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় বাস্তবায়িত ব্লক প্রদর্শনী করা হয় সিরাজদিখান উপজেলার বাসাইল ইউনিয়নের ডাকাতিয়াপাড়া এলাকার ১৫০ একর জমির মধ্যে।

যুগান্তর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.