বঙ্গবন্ধু এক্সপ্রেসওতে মোটরসাইকেল দূর্ঘটনায় নিহত ও আহত ২ বান্ধবীকে রেখে মদ্যপ ৩ বন্ধুর পালায়নঃ পদ্মা সেতুর উত্তর টোল প্লাজায় আটক

আরিফ হোসেন: মদ্যপ অবস্থায় সোমবার মধ্যরাতে বঙ্গবন্ধু এক্সপ্রেসওয়েতে বেপরোয়া গতিতে মোটরসাইকেল ভ্রমনে এসে ২ বান্ধবিকে নিয়ে দুর্ঘটনায় পতিত হয় ৩ যুবক। এসময় নিহত ও আহত ২ বান্ধবীকে এক্সপ্রেসওয়েতে রেখে পলায়ন করে মদ্যপ ৩ যুবক। কিন্তু পদ্মা সেতু পার হতে গিয়ে চেকপোস্টে বাধে বিপত্তি। তাদের শরীরে কাটা ছেড়া ও রক্তের দাগ দেখে পদ্মা সেতু উত্তর থানা পুলিশ তাদের আটক করে।

সোমবার রাতে এক্সপেসওয়ের শ্রীনগর উপজেলার উমপাড়া এলাকা থেকে হাঁসাড়া হাইওয়ে থানা পুলিশ নিহত বৃষ্টি(২৭) ও আহত জান্নাতুল ফেরদৌসকে(২৭) উদ্ধার করে শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। এমন সময় পদ্মা সেতু উত্তর থানা পুলিশ ২ নারীর বন্ধু এসএম আহসান রবি(২৯)কে চিকিৎসার জন্য একই হাসপাতালে নিয়ে আসলে আহত বান্ধবী তাকে সানাক্ত করে পুলিশের সাহাজ্য প্রার্থনা করেন। এসময় পুলিশ রবিকে আটক করে।

আহত বান্ধবী ও স্থানীয়রা জানায়, রাত ১ টার দিকে বৃষ্টি(২৭)ও জান্নাতুল ফেরদৌস(২২)কে নিয়ে ঢাকার হাতিরঝিল এলাকা থেকে ৩ বন্ধু এসএম আহসান রবি(২৯),মোশারফ হোসেন (৩২) ও সুমন(৩২) মোটরসাইকেলে করে মাওয়ার দিকে রওনা দেয়। রাত ২টার দিকে তারা শ্রীনগর উপজেলার উমপাড়া এলাকায় বেপরোয়া গতিতে চলতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সড়ক ব্যারিকেডে ধাক্কায় দুর্ঘটনায় পতিত হয়।

এতে নিহত হয় বৃষ্টি (২৭) ঘটনাস্থলেই মারা যায়। বাকী ৪ জনও আহত হয়। এসময় ৩ বন্ধু আহত জান্নাতুলকে বৃষ্টির পাশে রেখে মোটরসাইকেল নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তারা পদ্মা সেতুর উত্তর টোল প্লাজায় আটক হয়। ২ বান্ধবীর বাড়ি ঢাকার বাড্ডা এলাকায়। আটক আহসান হাবিব রবির বাবার নাম এসএম শাহজাহান। একটি অসর্থিত সূত্র জানায়,তিনি সরকারের উচ্চ পর্যায়ের একজন কর্মকতা।

শ্রীনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে রাতেই আহত জান্নাতুলকে ঢাকায় রেফার্ড করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

হাসাড়া হাইওয়ে থানার এসআই জহিরুল বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মধ্যরাতে ফায়ারসার্ভিসের সহযোগিতায় এক্সপ্রেসওয়ে থেকে ১ নিহত ও অপর ১ আহত নারীকে উদ্ধার করি। এসময় তাদের সাথে কোন যানবাহন ছিল না। আহত নারীকে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। এরমধ্যে পদ্মা সেতুর উত্তর থানা পুলিশ টোলপ্লাজা অতিক্রমের চেষ্টাকালে আটক হওয়া ৩ যুবককে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে নিয়ে আসে। ১ ব্যাক্তির হাতপায়ে কাটাছেঁড়া ছিলো। আহত নারী তাকে দেখে সনাক্ত করেন এই ৩ জনই তাদের বন্ধু। আহসান হাবীর রবির মোটর সাইকেলেই ২ বন্ধবী ছিল।

পদ্মা সেতু উত্তর থানা পুলিশ ৩ জনের মধ্যে অবৈধ ভাবে সেতুতে উঠার দায়ে ২ জনকে আটক করে এবং তাদেরকে ১ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। বাকী ১ জনকে হাইওয়ে থানায় সোপর্দ করা হয়।

শ্রীনগর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক মাহিয়া জানান, রাত ৩টার দিকে দুর্ঘটনায় আহত নারীকে হাসাড়া হাইওয়ে পুলিশ হাসপালে নিয়ে আসে। একই সময় পদ্মা সেতু উত্তর থানা পুলিশ ৩জন যুবককে হাসপালে নিয়ে আসে। এরা হলেন এহসান, মোশারফ হোসেন ও সুমন। আহত নারীকে রাজধানীর মিটফোর্ট হাসপালে প্রেরণ করা হয়েছে। ৩ যুবকই মদ্যপ অবস্থায় ছিল বলে তিনি জানান।

হাঁসাড়া হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আফজাল হোসেন জানান, আটক কৃত এসএম আহসান হাবীব রবিকে আসামী করে শ্রীনগর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.